‘রাত্রি’ কবিতাটির ভাববস্তু বিশ্লেষণ করো।  অথবা   রাত্রি’ কবিতায় অসহায় নাগরিক জীবনের প্রতিচ্ছবি কীভাবে প্রতিফলিত হয়েছে, আলোচনা করো।

জীবনানন্দের কবিতার মধ্যে দুটি বিষয় গুরুত্বপূর্ণ- ইতিহাস চেতনা ও সময়চেতনা। ইতিহাস চেতনা ও সময়চেতনা বিশেষভাবে প্রতিফলিত হয়েছে তাঁর ‘সাতটি তারার তিমির’ কাব্যগ্রন্থে। এই কাব্যগ্রন্থের অন্তর্ভুক্ত ‘রাত্রি’ কবিতায় কবি দুই বিশ্বযুদ্ধের মধ্যবর্তী সময়কালের কলকাতার নাগরিক জীবনের অসহায়তা, মনুষ্যত্বহীনতাকে অত্যন্ত সার্থকভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন। জীবনানন্দের কবিতায় ‘রাত্রি’ শব্দটি বহু ব্যবহৃত এবং তাৎপর্যপূর্ণ শব্দ। শব্দটি ব্যবহারের মধ্য দিয়ে তিনি … বিস্তারিত পড়ুন

‘১৯৪৬-৪৭’ কবিতাটির ভাববস্তু বিশ্লেষণ করো।  অথবা   ‘১৯৪৬-৪৭’ কবিতায় এক বিমূঢ় সময়ের চলচ্চিত্র কীভাবে ধরা দিয়েছে, আলোচনা করো।

জীবনানন্দের কবিতার মধ্যে দুটি বিষয় গুরুত্বপূর্ণ- ইতিহাস চেতনা ও সময়চেতনা। জীবনানন্দের সময় ও ইতিহাস চেতনার প্রতিনিধি স্থানীয় একটি কবিতা ‘১৯৪৬-৪৭’। ভারতবর্ষের ইতিহাসে ১৯৪৬-৪৭ সালের সময়কাল একই সঙ্গে প্রাপ্তি-অপ্রাপ্তি, আনন্দ-বেদনা, আশা-নিরাশায় পরিপূর্ণ। চারটি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা এই সময়কালের মানুষের জীবনকে বিপর্যস্ত করছিল— ১৯৪৬-এর সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা, ১৯৪৭-এ স্বাধীনতা, দেশভাগ এবং উদ্বাস্তু সমস্যা। মানুষ দিশেহারা হয়ে পড়েছিল- কেউ কাউকে … বিস্তারিত পড়ুন

আট বছর আগের একদিন’ কবিতার ভাববস্তু বিশ্লেষণ করো।  অথবা  ‘আট বছর আগের একদিন’ কবিতা অবলম্বনে কবির জীবন চেতনার পরিচয় দাও।

রবীন্দ্র পরবর্তী সময়কালে বাংলা কাব্যসাহিত্যে জীবনানন্দ দাশ একজন স্মরণীয় ব্যক্তিত্ব। জীবনানন্দ দাশের ‘আট বছর আগের একদিন’ কবিতাটি ‘মহাপৃথিবী’ কাব্যগ্রন্থের অন্তর্গত। কবিতাটিতে কবির এক সুগভীর জীবন চেতনার পরিচয় পাওয়া যায়। মৃত্যু জীবনানন্দের কবিতায় একটি বহু আলোচিত বিষয়। আলোচ্য কবিতাতেও তিনি শুনিয়েছেন এক মৃতের গল্প। কোনো এক ফাল্গুনের পঞ্চমী তিথিতে একজন মানুষ একগাছা দড়ি হাতে উপস্থিত হয় … বিস্তারিত পড়ুন

ক্যাম্পে’ কবিতার ভাববস্তু বিশ্লেষণ করো।  অথবা  ‘ক্যাম্পে’ কবিতায় মানুষের মগ্নচৈতন্যের সংকট কীভাবে ব্যক্ত হয়েছে, আলোচনা করো।

রবীন্দ্র পরবর্তী সময়কালে বাংলা কাব্যসাহিত্যে জীবনানন্দ দাশ একজন স্মরণীয় ব্যক্তিত্ব। ‘ক্যাম্পে’ কবিতাটি জীবনানন্দের ‘ধূসর পাণ্ডুলিপি’ কাব্যগ্রন্থের অন্তর্গত। এই কবিতায় কবি হরিণের বিপন্নতার রূপকে আধুনিক যুগের ক্লান্ত মানুষের মগ্নচৈতন্যের সংকটকে প্রকাশ করেছেন। কবিতাটি প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গে কবি অশ্লীলতার দায়ে অভিযুক্ত হন। সিটি কলেজের তৎকালীন অধ্যক্ষ কবিতাটি লেখার জন্য কবিকে ভর্ৎসনা করেন। ক্ষুব্ধ কবি এরপর নিজেই কবিতার … বিস্তারিত পড়ুন

‘পিরামিড’ কবিতা অবলম্বনে কবির ইতিহাস চেতনা ও মৃত্যু-চেতনার পরিচয় দাও।  অথবা   ‘পিরামিড’ কবিতার ভাববস্তু বিশ্লেষণ করো।

রবীন্দ্র পরবর্তী সময়কালে বাংলা কাব্যসাহিত্যে জীবনানন্দ দাশ একজন স্মরণীয় ব্যক্তিত্ব। জীবনানন্দ দাশের একটি বিশিষ্ট কবিতা ‘পিরামিড’। ‘পিরামিড’-কে আশ্রয় করে কবি জীবনানন্দ দাশ এক বিশেষ ইতিহাস চেতনা ও মৃত্যু-চেতনার পরিচয় দিয়েছেন। পিরামিড ইতিহাসের একটি বিষয়। মিশরের পিরামিডগুলি নির্মিত হওয়ার পর বহু শতাব্দী অতিক্রান্ত হয়ে গেছে। যুগ-যুগান্তর ধরে ‘দেশ- জাতি-সংসার-সমাজ’-এর অনেক উত্থান-পতন, ভাঙাগড়া ঘটে গিয়েছে, কিন্তু কেউই … বিস্তারিত পড়ুন

‘শিকার’ কবিতার ভাববস্তু বিশ্লেষণ করো।  অথবা  ‘শিকার’ কবিতায় দুটি ভোরের মাধ্যমে কবি কোন সমাজদর্শনের কথা বলেছেন ব্যাখ্যা করো।

রবীন্দ্র পরবর্তী সময়কালে বাংলা কাব্যসাহিত্যে জীবনানন্দ দাশ একজন স্মরণীয় ব্যক্তিত্ব। জীবনানন্দের কবিতায় বর্তমান যুগের মনুষ্যত্বহীনতা, মানুষের যান্ত্রিকতা এবং কৃত্রিমতা প্রকাশ পেয়েছে ঠিকই, তবে এইসব নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গিকে অতিক্রম করে জীবন সম্পর্কে এক প্রবল আশাবাদ ধ্বনিত হয়েছে তাঁর কবিতায়। ‘মহাপৃথিবী’ কাব্যগ্রন্থের অন্তর্গত ‘শিকার’ কবিতাটি এই ধরনেরই একটি কবিতা। কবিতাটিতে ‘ভোর’ শব্দটি দু’বার ব্যবহৃত হয়েছে। এই ভোর যেন … বিস্তারিত পড়ুন

  ‘তিমির হননের গান’ কবিতায় কবি জীবনানন্দের যে জীবন দর্শনের পরিচয় পাওয়া যায়, তা আলোচনা করো।  অথবা ‘তিমির হননের গান’ কবিতায় কবি জীবনানন্দের আস্তিক্যবোধের পরিচয় দাও।

জীবনানন্দ দাশের ‘তিমির হননের গান’ কবিতাটি ‘সাতটি তারার তিমির’ কাব্যগ্রন্থের অন্তর্গত। জীবনানন্দ দাশ জীবনের নৈরাশ্য, হতাশা, বিষন্নতা এবং নিসঙ্গতাকে অতিক্রম করে শেষপর্যন্ত আস্তিক্যবোধের উপর আস্থা রেখেছেন। ‘তিমির হননের গান’ কবিতায় সেই আস্তিক্যবোধের প্রকাশ ঘটেছে। এই কবিতায় তিনি তিমির তথা অন্ধকারকে দূর করে সূর্যের আলোর প্রত্যাশা করেছেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ ও বিয়াল্লিশের মন্বন্তরের পটভূমিতে দাঁড়িয়ে কবি খুঁজেছেন … বিস্তারিত পড়ুন

‘নগ্ন নির্জন হাত’ কবিতাটির ভাববস্তু বিশ্লেষণ করো।অথবা’ নগ্ন নির্জন হাত’ কবিতায় পরাবাস্তবতার সঙ্গে চিত্ররূপময়তার অনন্য সমন্বয় ঘটেছে।

রবীন্দ্র পরবর্তী সময়কালে বাংলা কাব্যসাহিত্যে জীবনানন্দ দাশ একজন স্মরণীয় ব্যক্তিত্ব। তাঁর কবিতার মধ্যে দুটি বিষয় গুরুত্বপূর্ণ— ইতিহাস চেতনা ও সময়জ্ঞান। ‘মহাপৃথিবী’ কাব্যগ্রন্থের অন্তর্গত ‘নগ্ন নির্জন হাত’ কবিতায় কবি জীবনানন্দ দাশ ইতিহাস চেতনা ও সময়জ্ঞানের পাশাপাশি বাস্তবতাবোধ ও চিত্রকল্পের অসাধারণ ব্যবহার করেছেন। এখানে স্মৃতিচারণ, হারানো সৌন্দর্য এবং হারানো পূর্ণতার মেলবন্ধন ঘটেছে। প্রেম ও সৌন্দর্যের অনুসন্ধান এই … বিস্তারিত পড়ুন

‘মানুষের মৃত্যু হলে’ কবিতাটির ভাববস্তু বিশ্লেষণ করো।   অথবা  ‘মানুষের মৃত্যু হলে’ কবিতাটির নামকরণের সার্থকতা বিচার করো।  অথবা   ‘মানুষের মৃত্যু হলে’ কবিতায় জীবনানন্দ দাশ মৃত্যু ও মৃত্যুহীন জীবনের যে পরিচয় দিয়েছেন তা বিশ্লেষণ করো।   অথবা   ‘মানুষের মৃত্যু হলে’ কবিতায় কবি জীবনানন্দ দাশ সময় চেতনার অভিনব ভাষ্য রচনা করেছেন- আলোচনা করো।

রবীন্দ্র পরবর্তী সময়কালে বাংলা কাব্যসাহিত্যে জীবনানন্দ দাশ একজন স্মরণীয় ব্যক্তিত্ব। তাঁর কবিতার মধ্যে দুটি বিষয় গুরুত্বপূর্ণ- ইতিহাস চেতনা ও সময়জ্ঞান। ‘মানুষের মৃত্যু হলে’ কবিতায় কবি জীবনানন্দ দাশ মৃত্যু ও মৃত্যুহীন জীবনের পরিচয় যেমন তুলে ধরেছেন তেমনি সময় চেতনার এক অভিনব ভাষ্য রচনা করেছেন। মৃত্যুতে মানুষের জীবনের সমাপ্তি— এই আপাত বাস্তবতা প্রকৃত জীবন সত্য নয়। জীবন … বিস্তারিত পড়ুন

‘বনলতা সেন’ কবিতাটির ভাববস্তু বিশ্লেষণ করো।অথবা  ‘বনলতা সেন’ কবিতাটির নামকরণের সার্থকতা বিচার করো।অথবা  ‘বনলতা সেন’ কবিতাটি অবলম্বনে কবির ইতিহাস চেতনা ও প্রেমভাবনার পরিচয় দাও।

রবীন্দ্র পরবর্তী সময়কালে বাংলা কাব্যসাহিত্যে জীবনানন্দ দাশ একজন স্মরণীয় ব্যক্তিত্ব। ‘বনলতা সেন’ কবিতাটি শুধু জীবনানন্দের শ্রেষ্ঠ কবিতা নয়, সমগ্র বাংলা সাহিত্যের একটি শ্রেষ্ঠ কবিতা। কবিতাটি’ বনলতা সেন’ কাব্যগ্রন্থের অন্তর্গত। কবিতাটিতে জীবনানন্দের ইতিহাস চেতনা ও প্রেমভাবনা একটি ভিন্ন মাত্রা লাভ করেছেন। প্রেমকে কবি হৃদয় দিয়ে অনুভব করেছেন এবং সেই প্রেমভাবনাকে প্রকাশ করতে গিয়েই তিনি ডুব দিয়েছেন … বিস্তারিত পড়ুন

Computer knowledge mcq questions for interview and comp exam. Hmo re development dm developments north west. Novel drug delivery systems 7th semester notes pdf download.