যোগের ব্যুৎপত্তিগত অর্থ লিখ। যোগের প্রকৃত প্রকৃতি বর্ণনা কর। যোগ দর্শন ও যোগ শিক্ষার মধ্যে আন্তঃসম্পর্ক ব্যাখ্যা কর। Write the etymological meaning of Yoga. Describe true nature of Yoga. Explain interrelationship between Yoga Philosophy and Yoga Education.

বুৎপত্তিগত অর্থ
শিক্ষা শব্দটির উৎপত্তি হয়েছে সংস্কৃত ‘শাস্’ ধাতু থেকে যার অর্থ হল শাসন করা, নিয়ন্ত্রণ করা, এবং নির্দেশ দান করা। শিক্ষা শব্দের বাংলা প্রতিশব্দ বিদ্যা’। বিদ্যা শব্দটি এসেছে সংস্কৃত ‘বি’ ধাতু থেকে যার অর্থ হল জ্ঞান অর্জন করা বা জানা। শিক্ষা শব্দের ইংরেজি প্রতিশব্দ Education। ‘Education’ শব্দের বুৎপত্তিগত অর্থ বিশ্লেষণ করতে গিয়ে বিভিন্ন ভাষাবিদগণ চারটি ধারণা প্রকাশ করেন।
প্রথমত, Education শব্দটি এসেছে লাতিন শব্দ Educatio’ থেকে। ‘Educatio’ শব্দটির উৎপত্তি হয়েছে দুটি শব্দের সংমিশ্রণ ‘e এবং ‘duco’ থেকে। ‘e’ কথার অর্থ হল ‘থেকে’ (from বা out of) এবং ‘duco’ কথার অর্থ হল ‘অন্তর্নিহিত কোনাে কিছুকে প্রকাশ করা’ (to draw out)। এই ধারণা অনুযায়ী, শিক্ষার অর্থ হল শিশুর মধ্যে লুকিয়ে থাকা সম্ভাবনা গুলােকে প্রকাশিত হতে সাহায্য করা।
দ্বিতীয়ত, Education শব্দটি এসেছে লাতিন শব্দ ‘Educare’ থেকে। ‘Educare’ শব্দের অর্থ হল লালন পালন করা (to bring up), পরিচর্যা করা (to nourish)। এই ধারণা অনুযায়ী, শিক্ষার অর্থ হল, শিশু বা অপরিণত শিক্ষার্থীকে উপযুক্ত লালনপালন বা পরিচর্যা দ্বারা জীবন ধারণের উপযােগী দক্ষতা ও কৌশল অর্জনে সাহায্য করা।
তৃতীয়ত, Education শব্দটি এসেছে লাতিন শব্দ ‘Educere’ থেকে। ‘Educere’ শব্দের অর্থ হল নির্দেশ দান করা (to lead out), প্রকাশ করা (to draw out)| শিক্ষা হল, নির্দেশ দানের মাধ্যমে শিক্ষার্থীর সুপ্ত গুণাবলিকে প্রকাশ করে শিক্ষার্থীকে এগিয়ে যেতে সাহায্য করা।
চতুর্থত, Education শব্দটি এসেছে লাতিন শব্দ ‘Educatum’থেকে। ‘Educatum’ শব্দের অর্থ হল শিক্ষাদানের কাজ। (teaching) শিক্ষা বলতে বােঝায়, শিক্ষাদানের মাধ্যমে শিক্ষার্থীকে বিকশিত করা।

প্রকৃতি (Nature of Education) :
(1) জীবনব্যাপী প্রক্রিয়া (Life – Long Process ) : শিক্ষা হল একটি জীবনব্যাপী প্রক্রিয়া অর্থাৎ, জন্মের পর থেকে মৃত্যুর আগে পর্যন্ত চলতে থাকে। জন্মের পর থেকে নিয়ন্ত্রিত (Formal), অনিয়ন্ত্রিত (informal) এবং প্রথামুক্ত (non – formal) শিক্ষার প্রতিষ্ঠান থেকে শিশু অভিজ্ঞতা লাভ করে।
(2) গতিশীল প্রক্রিয়া (Dynamic Process) : শিক্ষা একটি গতিশীল প্রক্রিয়া। শিক্ষার প্রকৃতি সময়, স্থান এবং সমাজের চাহিদা অনুযায়ী প্রতিনিয়ত পরিবর্তন হয়ে চলেছে।
(3) ব্যক্তির বিকাশ (Individual Development) : শিক্ষা হল ব্যক্তি বিকাশের প্রক্রিয়া। শিক্ষা ব্যক্তির সার্বিক অর্থাৎ দৈহিক, মানসিক, প্রক্ষোভিক, সামাজিক, নৈতিক, আধ্যাত্মিক, সৌন্দর্যবোধ এবং অর্থনৈতিক বিকাশের প্রক্রিয়া।
(4) শিশুর জন্মগত ক্ষমতার বিকাশ (Develops child’s innate power) : শিক্ষা শিশুর জন্মগত ক্ষমতা বিকাশের প্রক্রিয়া। এই ক্ষমতার বিকাশ ঘটাতে সাহায্য করে বাহ্যিক পরিবেশের বিভিন্ন অভিজ্ঞতা। শিক্ষাবিদ পেস্তালোৎসি এবং ফ্রয়েবেল শিক্ষার অন্যতম বৈশিষ্ট্য হিসাবে শিশুর জন্মগত ক্ষমতা বিকাশের কথা বলেছেন।
(6) আচরণের পুনর্গঠন (Modifies behaviour) : শিক্ষা শিশুর আচরণ পুনর্গঠনের প্রক্রিয়া। শিক্ষা হল এমন এক বিশেষ প্রক্রিয়া যার মধ্যে এবং যার মাধ্যমে শিক্ষার্থীর জ্ঞান, চরিত্র এবং আচরণের পরিবর্তন ঘটে।
(7) ত্রিমেরু প্রক্রিয়া (Tripolar Process) : শিক্ষা হল ত্রিমেরু প্রক্রিয়া। ত্রিমেরু প্রক্রিয়ার মাধ্যমে শিক্ষার্থীর সঠিক ব্যক্তিত্বের বিকাশ ঘটে। J.E. Adamson শিক্ষায় ত্রিমেরু তন্ত্রের প্রস্তাব করেছেন – Educator (শিক্ষক) Educarnd (শিক্ষার্থী) Environment School (পরিবেশ বিদ্যালয়) শিক্ষক, শিক্ষার্থী এবং পরিবেশের পারস্পরিক ক্রিয়ার মাধ্যমে শিক্ষাকার্য সম্পাদন হয়ে থাকে।
(8) প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ প্রক্রিয়া (Direct and Indirect Process) : শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা মুখোমুখি সংযোগের মাধ্যমে যে শিক্ষণ – শিখন ( Teaching – Learning ) কার্য পরিচালিত হয় তাই হল প্রত্যক্ষ শিক্ষার প্রক্রিয়া। কিন্তু শিক্ষার্থী যখন অনিয়ন্ত্রিত ও প্রথামুক্ত শিক্ষার প্রতিষ্ঠান থেকে শিক্ষালাভ করে তখন সেই প্রক্রিয়াকে বলা হয় পরোক্ষ শিক্ষার প্রক্রিয়া।
(9) অভিজ্ঞতার উন্নয়ন (Enrichment of Experience) : শিক্ষার একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য হল অভিজ্ঞতার উন্নয়ন। সাধারণ ব্যক্তি প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে জীবনের লক্ষ্য কেন্দ্র করে অভিজ্ঞতা অর্জন করে। অভিজ্ঞতাই ব্যক্তির যে – কোনো কার্যসম্পাদনে বিশেষ ভূমিকা পালন করে।
(10) লক্ষ্য নির্ভর (Goal attainment) : শিক্ষার অন্যতম বৈশিষ্ট্য হল প্রতিটি মানুষের জীবনের লক্ষ্যপূরণ। শিক্ষা হল লক্ষ্য নির্ভর একটি সামাজিক প্রক্রিয়া। সমাজের প্রতিটি ব্যক্তি তার জীবনের লক্ষ্য ও সামর্থ্যকে কেন্দ্র করে শিক্ষাকে পরিচালিত করে।
(11) শিক্ষার বৈজ্ঞানিক প্রকৃতি (Scientific nature of Education) : আধুনিক যুগ হল বিজ্ঞানের যুগ। তাই আজকের শিক্ষা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নির্ভর। শিক্ষা সমাজের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে গবেষণা করে থাকে। যেমন – সামাজিক, রাজনৈতিক, ধর্মীয়, নৈতিক, সাংস্কৃতিক, অর্থনৈতিক এবং সৌন্দর্যবোধের বিকাশ ইত্যাদি। শিক্ষা শিক্ষার্থীকে জ্ঞান, সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের মাধ্যমে ধারাবাহিক বিজ্ঞাননির্ভর জীবন গড়ে তুলতে সাহায্য করে।
(12) সামাজিক পরিবর্তনের হাতিয়ার (Instrument of Social Change) : শিক্ষা হল সমাজ পরিবর্তনের একটি শক্তিশালী হাতিয়ার। শিক্ষা সমাজের সাংস্কৃতিক এবং অর্থনৈতিক প্রভৃতি দিকের পরিবর্তনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Discover more from

Subscribe now to keep reading and get access to the full archive.

Continue reading

Compitative exams mcq questions and answers. Graphics dm developments north west. Hap 2nd semester notes pdf :.