লোকসভার গঠন ক্ষমতা ও কার্যাবলী –

ভারতের কেন্দ্রীয় আইনসভার নিম্নকক্ষ হল লোকসভা। সংবিধানের ৪নং ধারা অনুসারে লোকসভা সর্বাধিক ৫৫০ জন সদস্য নিয়ে গঠিত। এরমধ্যে রাজ্যগুলি থেকে নির্বাচিত হবে সর্বাধিক ৫৩০ জন এবং কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল থেকে নির্বাচিত সদস্য সংখ্যা সর্বাধিক ২০ জন। বর্তমানে লোকসভার মোট সদস্য সংখ্যা হল ৫৪৫। লোকসভার মেয়াদ সাধারনত ৫ বছর। সাধারনত লোকসভায় কোন মনোনীত সদস্যের ব্যবস্থা রাখা হয়নি, তবে রাষ্ট্রপতির যদি মনে করেন লোকসভায় ইঙ্গ-ভারতীয় সম্প্রদায়ের যথাযথ প্রতিনিধিত্ব নেই তাহলে একজন অথবা সর্বাধিক ২ জন এই সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিকে তিনি মনোনীত করতে পারেন।

লোকসভার সদস্যদের প্রার্থীকে অবশ্যই ভারতীয় নাগরিক হতে হবে, কমপক্ষে ২৫ বছর ময়স হতে হবে, সংসদ দ্বারা ঘোষিত অন্যান্য যোগ্যতা থাকতে হবে, ভোটার তালিকায় নাম থাকতে হবে। লোকসভার সদস্যগন বিভিন্ন রাজ্য থেকে সর্বজনীন প্রাপ্তবয়স্ক নাগরিকদের দ্বারা প্রত্যক্ষভাবে নির্বাচিত হন।

লোকসভার ক্ষমতা ও কার্যাবলী লোকসভার আস্থার ওপর সরকারের অস্তিত্ব নির্ভরশীল, তাই লোকসভাকে জনপ্রিয় কক্ষ এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কক্ষ বলা হয়। লোকসভার ক্ষমতা ও কার্যাবলীকে কয়েকটিভাগে ভাগ করে নিম্নে আলোচনা করো হল- –

সরকার গঠন লোকসভার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রধান কাজ হল সরকার গঠন করা। এই ব্যাপারে রাজ্যসভার কিছু করনীয় থাকে না। সাধারনত নির্বাচনের পর লোকসভায় যে দল বা জোট নিরঙ্কুশ সংখ্যা গরিষ্ঠতা লাভ করে সেই দলের নেতা বা নেত্রীকে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী হিসাবে নিয়োগ করেন। প্রধানমন্ত্রীর সুপারিশক্রমে অন্যান্য মন্ত্রীদের নিয়োগ ও দপ্তর মন্টন করা হয়। এছাড়া লোকসভার নেতা অর্থাৎ প্রধানমন্ত্রীর সুপারিশেই রাষ্ট্রপতি দ্বারা পুনবন্টন ও পদচ্যুতি করা হয়।

খ) শাসন বিভাগকে নিয়ন্ত্রণ মন্ত্রীসভা সহ সমগ্র শাসন বিভাগকে নিয়ন্ত্রণ করে থাকে লোকসভা। সংবিধানের ৭৫নং ধারা অনুসারে মন্ত্রীসভা সর্বদাই যৌথভাবে লোকসভার নিকট দায়িত্বশীল থাকবে। প্রকৃতপক্ষে লোকসভার আস্থা হারালে সরকারের পতন ঘটে। তাই লোকসভার সংখ্যাগরিষ্ঠের সমর্থন সরকার বা মন্ত্রীসভার কাছে প্রাণ স্বরূপ। অনাস্থা প্রস্তাব ছাড়াও লোকসভার সদস্যগন নানা প্রশ্ন ও সমালোচনার মাধ্যমে সরকারকে নিয়ন্ত্রণ করে। এছাড়া সংসদে মুলতবী প্রস্তাব, নিন্দা সূচক প্রস্তাব, দৃষ্টি আকর্ষনী প্রস্তাব প্রভৃতির মাধ্যমে শাসন বিভাগকে নিয়ন্ত্রণ করে। থাকে।

গ) আইন বিষয়ক ক্ষমতা লোকসভা যেহেতু কেন্দ্রীয় আইন সভার গুরুত্বপূর্ণ কক্ষ তাই আইন তৈরি করা লোকসভার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব। আইন প্রনয়ণ সংক্রান্ত ব্যাপারে অবশ্য লোকসভা ও রাজ্য সভা সমান মর্যাদা ও ক্ষমতার অধিকারী। পার্লামেন্ট সাধারনত কেন্দ্রীয় তালিকাভুক্ত বিষয়ে

আইন তৈরির চুড়ান্ত উৎস। এছাড়া যুগ্ম তালিকা বিষয়ে এবং রাজ্য সভার অনুরোধে বিশেষ প্রয়োজনে রাজ্য তালিকা বিষয়ে আইন প্রনয়ন করতে পারে।

ঘ) অর্থ সংক্রান্ত ক্ষমতা ভারতে অর্থ সংক্রান্ত বিষয়ে চূড়ান্ত ক্ষমতা ভোগ করে লোকসভা। অর্থবিল মন্ত্রীসভার পক্ষে অর্থমন্ত্রী প্রথম লোকসভায় পেশ করেন। লোকসভায় অনুমোদনেরপর বিলটিকে রাজ্য সভায় পাঠানো হয়। ১৪ দিনের মধ্যে অর্থবিল ব্যাপারে রাজ্যসভা তার সুপারিশ সহ লোকসভায় প্রেরণ করে। লোকসভা সেই সুপারিশ গ্রহন করতে পারে আবার নাও করতে পারে। রাষ্ট্রপতি ও লোকসভায় অনুমোদিত বিলে সম্মতি দিতে বাধ্য। কোন বিল অর্থবিল কিনা সে বিষয়ে চূড়ান্ত সার্টিফিকেট দেবার অধিকারী লোকসভার স্পীকার।।

লোকসভা নানা ভাবে সরকারের আর্থিক ক্রিয়াড়কলাপকে নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। লোকসভার সম্মতি ছাড়া কোন বায় বরাদ্দ, কর আরোপ করা, কর প্রত্যাহার করা সম্ভব নয়। তাছাড়া লোকসভার বিভিন্ন কমিটি যেমন পাবলিক অ্যাকাউন্ট কমিটি, এস্টিমেট কমিটি প্রভৃতি দ্বারা সরকার ও শাসন বিভাগের আর্থিক আয়-ব্যয়ের উপর নিয়ন্ত্রণ করে থাকে।

জরুরী অবস্থা সংক্রান্ত ক্ষমতা পূর্বে জরুরী অবস্থা সংক্রান্ত বিষয়ে লোকসভা ও রাজ্যসভা সমান ক্ষমতা ভোগ করতো, বর্তমানে ৪৪তম সংবিধান সংশোধনে লোকসভার হাতে কিছু বিষয়ে ক্ষমতা প্রদান করা হয়েছে। এই ক্ষমতা অনুসারে লোকসভা জরুরী অবস্থা প্রত্যাহার করে নিবেন। তাছাড়া জরুরী অবস্থা বিষয়ে আলোচনার জন্য লোকসভার ১ অংশ সদস্য যদি অনুরোধ করেন তাহলে রাষ্ট্রপতি লোকসভার বিশেষ অধিবেশন ডাকতে বাধ্য।

লোকসভার ক্ষমতা ও কার্যাবলী সম্পর্কে উপরোক্ত বিষয়গুলি ছাড়াও লোকসভা জনমত গঠনে বিশেষ দক্ষতার পরিচয় দিয়েছে। বিভিন্ন প্রশ্ন-উত্তর, সরকারের জনবিরোধী নীতি ও দুর্নীতির সমালোচনা, বিভিন্ন তথ্য প্রকাশ প্রভৃতির মধ্য দিয়ে লোকসভা জনমত গঠন করে থাকে। এছাড়া সংবিধান সংশোধন, তথ্য সরবরাহ, রাজ্যের আয়তন ও নামের পরিবর্তন, নতুন ভূখন্ডকে ভারতের সঙ্গে যোগ করা প্রভৃতি বিষয়ে লোকসভা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে

 

 

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Discover more from

Subscribe now to keep reading and get access to the full archive.

Continue reading

Analysis 1st semester notes pdf download. Graphics dm developments north west. Noun siwes report student arrive platform.